1. admin@aloketosatkhira.com : admin :
  2. kdpress21@gmail.com : aloketo satkhira : aloketo satkhira
  3. leto.debhata@gmail.com : Aloketo satkhira : Aloketo satkhira
  4. codew4m787@gmail.com : aloketosatkhira news : aloketosatkhira news
  5. masujoy77@gmail.com : aloketo satkhira : aloketo satkhira
ভিপি নূরের বক্তব্য- ঔদ্ধত্য,অজ্ঞতা নাকি  স্বাধীনতাবিরোধী শক্তির প্রতিনিধিত্বের বহিঃপ্রকাশ? - আলোকিত সাতক্ষীরা
সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ১১:১৬ অপরাহ্ন
বিশেষ:
আ’লীগ নেতা সোলায়মান হত্যা মামলার প্রধান আসামি ওহাব আলী পেয়াদা গ্রেপ্তার ভিপি নূরের বক্তব্য- ঔদ্ধত্য,অজ্ঞতা নাকি  স্বাধীনতাবিরোধী শক্তির প্রতিনিধিত্বের বহিঃপ্রকাশ? আইন মানেন না সাতক্ষীরার সার্কেল এসপি হুমায়ুন কবির তালায় সুষ্ঠভাবে ভোটগ্রহণে প্রতিবন্ধকতা, কেন্দ্র পরিবর্তন চায় ভোটাররা নব-মুসলিম পরিচয়ে প্রতারণা করছে সাধন দাস কলারোয়ার বালিয়াডাঙ্গায় ভাষা দিবসে জাতীয় পতাকা অবমাননা সাতক্ষীরায় মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত নিষিদ্ধ গাইডের সয়লাব “আল জাজিরার ডকুমেন্টারি একটি বায়বীয়, একপেশে এবং উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ডকুড্রামা” সাতক্ষীরায় আ’লীগের কাউন্সিলর প্রার্থীরা বিএনপি ও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর থেকে সুবিধা নিয়ে ভোট করেছে সাতক্ষীরায় মেকাপম্যানের হুজুর সেজে ওয়াজ, খেলেন গণধোলাই (ভিডিও)
সর্বশেষ:
দেবহাটায় লকডাউনে ধরা খেল বরযাত্রীর গাড়ি-মোবাইল কোর্টে জরিমানা দেবহাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে র‌্যাপিড এন্টিজেন টেস্ট শুরু দেবহাটায় একদিনে ১৬ জনের করোনা শনাক্ত দেবহাটায় লকডাউন বাস্তবায়নে মোবাইল কোর্টের অভিযান, জরিমানা আ’লীগ নেতা সোলায়মান হত্যা মামলার প্রধান আসামি ওহাব আলী পেয়াদা গ্রেপ্তার শোভনালী ব্রীজ কালিবাড়ি সড়ক সংস্কার করছেন ইউপি চেয়ারম্যান “শেখ হাসিনার দৃষ্টিনন্দন মসজিদ পরিবর্তন আনুক ওদের দৃষ্টিভঙ্গিতে” নজরুল ইসলাম, কলাম লেখক ও তরুণ আওয়ামীলীগ নেতা। ইউপি সদস্যকে মারপিটের ঘটনায় চেয়ারম্যান রতন সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দেবহাটায় ইউপি সদস্যকে পেটালেন চেয়ারম্যান রতন! দেবহাটার জুয়েল হত্যা: দু’দিনের রিমান্ডে ইমরোজ

ভিপি নূরের বক্তব্য- ঔদ্ধত্য,অজ্ঞতা নাকি  স্বাধীনতাবিরোধী শক্তির প্রতিনিধিত্বের বহিঃপ্রকাশ?

  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৯২ দেখেছেন

  মোঃ নজরুল ইসলাম,আওয়ামীলীগ নেতা

১৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ,সোনাডাঙ্গা থানা,খুলনা মহানগর।
“যারা আওয়ামীলীগ করে তারা মুসলমান নয়। কোন ধর্মপ্রাণ মুসলমান আওয়ামীলীগ করতে পারে না।আওয়ামীলীগের লোকজন পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে না। সপ্তাহে একদিন শুধু শুক্রবার লোক দেখানো জুমার নামাজ পড়ে।আওয়ামীলীগ আলেম-ওলামাদের চরিত্র হনন করছে।” কথাগুলো বলেছেন সাবেক ডাকসু ভিপি নুরুল হক নূর।গত ১৪ ই এপ্রিল নিজের ফেসবুক লাইভে দেশের সর্ববৃহৎ এবং সর্বাধিক জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল এবং দলটির কোটি কোটি নেতা,কর্মি,অনুসারী,
সমর্থকদের উদ্দেশ্য করে এ ধরণের ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য দেন নূর।
স্বাধীনতাবিরোধী এবং বাংলাদেশবিরোধী একটি অপশক্তি ৫৪’র যুক্তফ্রন্ট নির্বাচন এবং ৭০’র নির্বাচনের পূর্বে ধর্মীয় উন্মাদনা সৃষ্টি করে সাধারণ ধর্মপ্রাণ মুসলমানকে বিভ্রান্ত করতে চেয়েছিলেন।ধর্মের দোহাই দিয়ে রাজনীতি করা ঐ গোষ্ঠী ৫৪ সালে এবং ৭০ সালেও অর্বাচীন  নূরের মত একই ধরনের উক্তি করেছিলেন। তখন তারা “যুক্তফ্রন্ট এবং আওয়ামীলীগকে ভোট দিলে ঈমান থাকবে না,আওয়ামীলীগকে ভোট দিলে বিবি তালাক হয়ে যাবে।” জনসভায় প্রকাশ্যে এ ধরণের বক্তব্য দিয়েও এদেশের সাধারণ ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের বিভ্রান্ত করতে পারে নি।মানুষ ঠিকই ৫৪ এবং ৭০ এ যুক্তফ্রন্ট এবং আওয়ামীলীগকেই ভোট দিয়েছে।ফতোয়াবাজ ধর্মব্যবসায়ীদের মানুষ ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছে।ওদের জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে।সাবেক ডাকসু ভিপি নূর ঐসব স্বাধীনতাবিরোধী ধর্মব্যবসায়ীদের উত্তরসুরি হিসেবে আবির্ভূত হয়েছেন।অথচ অর্বাচীন নূরের জানা উচিত উপমহাদেশের প্রখ্যাত আলেম মাওলানা ভাসানী এবং বিশিষ্ট ইসলামী পন্ডিত শামসুল হক আওয়ামীলীগ প্রতিষ্ঠায় নেতৃত্ব দিয়েছেন। শামসুল হক অনেক ধর্মগ্রন্থ রচনা করেছেন। আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা মাওলানা ভাসানীর পিতা ছিলেন একজন হাজি। আরবি ভাষা ও সাহিত্যে স্নাতকোত্তর ডিগ্রীধারী মুসলিম লীগ নেতা হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী এবং উপমহাদেশের অন্যতম ইসলামী চিন্তাবিদ আবুল হাশিমের নির্দেশে গণমানুষের সংগঠন আওয়ামীলীগের জন্ম। কুরআন শরীফের মূল আরবির বাংলা তর্জমা আবুল হাশিমের উদ্যোগে করা হয়েছিল। পরবর্তীতে সংগঠনটির নেতৃত্ব দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু।বঙ্গবন্ধুর পূর্বপুরুষেরা এদেশে ইসলাম ধর্মের প্রচার করেছেন।আওয়ামীলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করা মাওলানা আব্দুর রশীদ তর্কবাগীশ ছিলেন বড়পীর হযরত আব্দুল কাদের জিলানীর বংশধর।বহু ইসলামিক পুস্তকের প্রণেতা ছিলেন মাওলানা আব্দুর রশীদ তর্কবাগীশ।আওয়ামীলীগের তিনবারের সাধারন সম্পাদক জননেতা তাজউদ্দিন আহমেদ ছিলেন কুরআনের হাফেজ।তার বাবা ছিলেন একজন প্রখ্যাত মৌলভী। ৭৫ পরবর্তী আওয়ামীলীগকে নেতৃত্ব দেওয়া মালেক উকিলের শিক্ষাজীবন শুরু হয়েছিল মাদ্রাসা শিক্ষার মাধ্যমে।
ছাত্রলীগের নেতৃত্বের ব্যর্থতা কিংবা অযোগ্যতার সুযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি হলের ছাত্রলীগের উপ মানব সম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক থেকে ডাকসু ভিপি হওয়া নূর সম্ভবত ভুলেই গেছে তার জন্ম কিংবা উত্থান ছাত্রলীগের রাজনীতির মাধ্যমে।এদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের বড় অংশ আওয়ামীলীগকে সমর্থন করে।কারন তারা জানে ধর্মের প্রচার ও প্রসারে আওয়ামীলীগ সরকারই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা কিংবা কওমী মাদ্রাসার লক্ষ লক্ষ শিক্ষার্থীদের সর্বোচ্চ সনদের স্বীকৃতি আওয়ামীলীগ সরকারই দিয়েছে।এদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের এটা অজানা নয় যে, আওয়ামীলীগ সভাপতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করেন এবং নিয়মিত পবিত্র কুরআন তেলাওয়াত করেন।ইসলাম ধর্মের সকল রীতিনীতি তিনি মেনে চলেন।আওয়ামীলীগের লক্ষ,কোটি নেতা,কর্মি,সমর্থক পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়েন।এদেশের হাজার হাজার মসজিদ,মাদ্রাসা এবং এতিমখানা চলে আওয়ামীলীগ নেতাদের অর্থায়নে এবং নেতৃত্বে। রাজাকার এবং ধর্মব্যবসায়ীদের পক্ষ অবলম্বন করা নব্য রাজাকার নূরুল হক নূর তার বক্তব্যের মাধ্যমে এদেশের লক্ষ লক্ষ ধর্মভীরু এবং পরহেজগার আওয়ামীলীগ সমর্থকদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে চরম ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন। তার এই ধৃষ্টতাপূর্ণ বক্তব্য অবিলম্বে প্রত্যাহারপূর্বক জাতির কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে।অন্যথায় তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এরকম আরও নিউজ
© All rights reserved © 2019 Breaking News
Theme Customized By BreakingNews